নবম শ্রেণীর হিসাব বিজ্ঞান এ্যাসাইনমেন্ট ৬ষ্ঠ সপ্তাহ - ২০২১ উত্তর

নবম শ্রেণীর হিসাব বিজ্ঞান এ্যাসাইনমেন্ট ৬ষ্ঠ সপ্তাহ - ২০২১

এসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজঃ

হিসাব বিজ্ঞান মানুষের মূল্যবোধ ও জবাবদিহিতা সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এই সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন লেখ।

সংকেতঃ
ভূমিকা।
হিসাব বিজ্ঞানের ধারণা হিসাব বিজ্ঞানের উদ্দেশ্য।
হিসাববিজ্ঞানের উৎপত্তি।
সমাজ ও পরিবেশের সাথে হিসাব বিজ্ঞানের সম্পর্ক।
হিসাববিজ্ঞান ও মূল্যবোধ।
হিসাববিজ্ঞান ও জবাবদিহিতা।
উপসংহার।

নবম শ্রেণীর হিসাব বিজ্ঞান এ্যাসাইনমেন্ট ৬ষ্ঠ সপ্তাহ - ২০২১ উত্তর

প্রতিবেদন

হিসাব বিজ্ঞান মানুষের মূল্যবোধ ও জবাবদিহিতা সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
ভূমিকাঃ

হিসাববিজ্ঞান এমন একটি বৈজ্ঞানিক প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে কেবলমাত্র একটি প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় আর্থিক কার্যাবলি লিপিবদ্ধ করাই হয় না। হিসাব বিজ্ঞান এর মাধ্যমে উক্ত প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে নিরূপণ করা যায়। অর্থাৎ হিসাববিজ্ঞান এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যাবতীয় হিসাব সংরক্ষণ লিপিবদ্ধকরণ শ্রেণীবদ্ধকরণ এবং তা পর্যালোচনা করে উক্ত প্রতিষ্ঠানে সম্পর্কে আর্থিক অবস্থা নিরূপণ করা যায় এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা যায়।

হিসাব বিজ্ঞানের ধারণা হিসাব বিজ্ঞানের উদ্দেশ্যঃ
হিসাববিজ্ঞানের নানামুখী উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনীয়তা রয়েছে যার মধ্যে প্রথম উদ্দেশ্য হলো লেনদেন সমূহ কে সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি অনুসরণ করে সঠিকভাবে হিসাবের বইতে লিপিবদ্ধ করা। এর অন্যান্য প্রধান উদ্দেশ্য গুলোর মধ্যে হল প্রতিষ্ঠান আর্থিক ফলাফল ও আর্থিক অবস্থা নিরূপণ করা লাভ ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা। প্রতিষ্ঠানের সম্পদ ও মালিকানা স্বত্বের পরিমাণ নির্ণয়ের মাধ্যমে আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে পূর্ণ ধারণা লাভ দেওয়া । প্রতিষ্ঠান ব্যয় নিয়ন্ত্রণ এর মাধ্যমে কাঙ্ক্ষিত ফলাফল অর্জন করা।

হিসাববিজ্ঞানের উৎপত্তিঃ
উৎপত্তি ও ক্রমবিকাশ অর্থাৎ হিসাববিজ্ঞান কিভাবে আমাদের মাঝে এলো। প্রাচীন আমল থেকেই মানুষ বিভিন্নভাবে হিসাব সংরক্ষণ করে আসতো যেমন গাছের গায়ে গুহায় পাথরের চিহ্ন দিয়ে হিসাব রাখত। পরবর্তীতে বিনিময় প্রথা চালু হওয়ার পর মুদ্রা প্রচলন হয় এবং মানুষ একটি সঠিক পদ্ধতিতে হিসাব সংরক্ষণের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে। যার ফলশ্রুতিতে হাজার 1494 সালে লুকাপ্যাসিওলি হাত ধরে হিসাব বিজ্ঞানের দুতরফা দাখিলা পদ্ধতির ধারণা উদ্ভূত হয়। ফলে আজকের আধুনিক হিসাববিজ্ঞানের উৎপত্তি ও বিকাশ লাভ করে।

সমাজ ও পরিবেশের সাথে হিসাব বিজ্ঞানের সম্পর্কঃ
আজকের এই আধুনিক সমাজ ও পরিবেশের সাথে হিসাব বিজ্ঞানের সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত রয়েছে। হিসাববিজ্ঞান শুধু ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান মুনাফা নির্ণয়ের জন্য ব্যবহার হয় না বরং এটি সমাজ ও পরিবেশের বিভিন্ন কার্যকলাপের সাথে জড়িত। যেমন পরিবেশের বিভিন্ন খাতে ব্যয় করার জন্য হিসাব সংরক্ষণ করা শিল্প-কারখানার নির্গত ধোয়ার ফলে যে পরিবেশ ক্ষতি হয় তা সংরক্ষণের জন্য মালিকপক্ষের ব্যয় নির্ধারণ করা। পণ্য তৈরিতে কাঁচামাল সংরক্ষণ এবং যথাসম্ভব হিসাব সংরক্ষণের মাধ্যমে মৃতব্যয়ী হওয়া যায় একটি দেশের শিল্প কারখানা গঠনের সহযোগিতা করে। মোটকথা সমাজের মানুষের মধ্যে দায়বদ্ধতা সৃষ্টিতে হিসাববিজ্ঞান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

হিসাববিজ্ঞান ও মূল্যবোধঃ
হিসাব বিজ্ঞান মানুষের মূল্যবোধ সৃষ্টি ও জবাবদিহিতার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। যেমন হিসাববিজ্ঞানের মাধ্যমে হিসাব সংরক্ষণ এর ফলে আর্থিক দুর্নীতি জালিয়াতি ইত্যাদির ওপর নিয়ন্ত্রণ থাকে। ফলে মানুষের ভিতরে সততা ও দায়িত্ববোধের বিকাশ ঘটে। এছাড়াও হিসাববিজ্ঞান দিন পরিশোদের সচেতনতা তৈরি করে। হিসাববিজ্ঞান সরকারের কাস্টমসে ইত্যাদি নির্ধারণ করে সমাজ ও রাষ্ট্রের প্রতি দায়িত্ববোধ সৃষ্টি করে। সুষ্ঠু হিসাবরক্ষণ এবং হিসাব ব্যবস্থার মাধ্যমে হিসাববিজ্ঞান জালিয়াতি ও প্রতারণা প্রতিরোধ করে সমাজের মানুষের মধ্যে মূল্যবোধ ও জবাবদিহিতা সৃষ্টি করে।

হিসাববিজ্ঞান ও জবাবদিহিতাঃ
কেবল সুস্থ হিসাবরক্ষণ এর ফলে একটি প্রতিষ্ঠান জবাবদিহিতা সৃষ্টি সম্ভব। কারণ সুষ্ঠু হিসাবরক্ষণ এর ফলে প্রতিষ্ঠান অধীনস্থ কর্মকর্তা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট জবাবদিহি করতে হয়।এছাড়াও হিসাবরক্ষণ এর ফলে সরকারের বিভিন্ন অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট জবাবদিহি থাকতে হয়। সুষ্ঠু হিসাব সংরক্ষণ এর ফলে একটি প্রতিষ্ঠান সার্বিক আর্থিক পরিস্থিতি নির্ধারিত হয় ফলে ঋণ গ্রহণের ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা সৃষ্টি হয়।

উপসংহারঃ
মোটকথা আধুনিক সমাজের এবং আধুনিক রাষ্ট্রের সকল অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে শুরু করে শিল্প-কারখানায় ব্যবসা-বাণিজ্য সকল ক্ষেত্রে হিসাব বিজ্ঞানের গুরুত্ব অপরিসীম। সর্বোপরি হিসাববিজ্ঞান ছাড়া আধুনিক সমাজ চিন্তা করা যায় না।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন

সার্চ করুন

close